কোয়ার্ক কি? এর ইতিহাস? এর প্রকারভেদ?

কোয়ার্ক কি? এর ইতিহাস? এর প্রকারভেদ?

80 বার প্রদর্শিত
"বিজ্ঞান" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন (365 পয়েন্ট)
Like

1 উত্তর

গুণাগুণের ভিত্তিতে কোয়ার্কদের বিভিন্ন কাব্যিক নামে ভূষিত করা হয়েছে। কোয়ার্কের সংখ্যা মােট ছয়টি। এদের নামকরণ হয়েছে ছয়টি ফ্লেভারে (flavour)। উঁচু (up), নিচু (down), অজানা (strange), মােহিত (charred), সবার নিচে (bottom) এবং সবার উপরে (top)। প্রত্যেক ফ্লেভারে আবার তিনটি করে রং (colour); লাল নীল ও সবুজ।

 তবে প্রকৃত অর্থে কোয়ার্কের কোন গন্ধ বা রং নেই। কেননা কোয়ার্ককে দেখা যায় না। কোয়ার্করা এত ক্ষুদ্র যে তাদের আকার দৃশ্যমান আলাের তরঙ্গ দৈর্ঘ্যের চেয়েও ছােট। আসলে এই নামগুলাে ব্যবহার করা হয়েছে। মার্কা (label) অর্থে । প্রােটন এবং নিউট্রন প্রত্যেকে তিনটি করে কোয়ার্ক দ্বারা গঠিত যাদের প্রতিটি ভিন্ন রঙের । প্রােটনে দুটি উঁচু ও একটি ‘নিচু' কোয়ার্ক এবং নিউট্রনে একটি “উঁচু ও দুটি ‘নিচু কোয়ার্ক থাকে। অন্য ফ্লেভারের কোয়ার্ক দিয়েও কণিকা তৈরি হতে পারে।

তবে তাদের ভর হবে এত বেশি যে অতিদ্রুত ক্ষয়প্রাপ্ত হয়ে তারা প্রােটন ও নিউট্রনে পরিণত হবে। সুতরাং দেখা যাচ্ছে প্রােটন এবং নিউট্রন মৌলিক কণা নয়। এরা কোয়ার্ক দ্বারা গঠিত। অনেকে আবার মনে করেন কোয়ার্কও মৌল কণা নয় । কোয়ার্ক প্রিয়ন নামক এক প্রকার মৌল কণা দ্বারা গঠিত। তবে পরীক্ষাগারে প্রিনের অস্তিত্ব এখন পর্যন্ত প্রমাণিত হয়নি। তাহলে, প্রকৃত মৌলকণা কি? আসলে এই প্রশ্নটির উত্তর এখনাে পাওয়া যায়নি। পরমাণু বিজ্ঞানীরা কেন্দ্রীনে কোয়ার্ক ছাড়া আরাে অনেক ক্ষুদ্র কণিকার সন্ধান পেয়েছেন।

কেন্দ্রীনে উচ্চ থেকে উচ্চতর শক্তি প্রয়ােগ করে বিজ্ঞানীরা এ যাবৎ প্রায় একশর বেশি মৌল কণা আবিষ্কার করতে সক্ষম হয়েছেন। গুণাগুণের বিচারে এই সব কণিকাকে সাধারণত: দুটি পরিবারে বিভক্ত করা হয়। 'লেপটন পরিবার' এবং “হ্যাড্রন' পরিবার। ইলেকট্রন ‘লেপটন' পরিবারভুক্ত কিন্তু প্রােটন এবং নিউট্রন 'হ্যাড্রন' পরিবারভুক্ত। মৌলকণা বলে অভিহিত হলেও এরা মৌলিক নয়। এই সব কণিকাদের অনেকেই ক্ষণস্থায়ী কিংবা স্বল্পস্থায়ী। ইলেকট্রন অবশ্য মৌল কণা বলে বিবেচিত । কেননা ইলেকট্রনকে এখন পর্যন্ত ভাঙা সম্ভব হয় নি।

কিন্তু আমাদের সাধারণ বিচারবুদ্ধি বলে, পদার্থের যদি কোন ‘অন্তিম কণা থাকে তাহলে ভর এবং আধান উভয় দিক থেকেই তাদের ন্যূনতম মানের অধিকারী হওয়ার কথা। এতকাল জানা ছিল যে কণা হিসাবে ইলেকট্রনই ন্যূনতম ভরের অধিকারী। কিন্তু সম্প্রতি জানা গেছে যে নিউট্রিনাের যৎসামান্য ভর আছে । নিউট্রিনাে হল এক ধরনের মৌল কণা যা আধানহীন এবং অন্য কণার উপর যার প্রভাব অতি সামান্য। এতকাল মনে করা হত, নিউট্রিনাে ফোটনের মত ভরহীন যা কয়েক কোটি মাইল পুরু সীসার ভেতর দিয়ে অনায়াসে অতিক্রম করে যেতে পারে। আধানের দিক থেকেও ইলেকট্রন মােটেই ন্যূনতম নয়।

কোয়ার্কের আধান ইলেকট্রনের আধানের চেয়ে কম। কোন কোন কোয়ার্কের আধান ইলেকট্রন আধারের এক-তৃতীয়াংশ মাত্র। কোনটির আবার দুই-তৃতীয়াংশ। সুতরাং ভর এবং আধান, কোন দিক দিয়েই ইলেকট্রন ন্যূনতম নয়। কাজেই ইলেকট্রন যদি অন্তিম কণা হয় তাহলে বুঝতে হবে পদার্থের অন্তিম কণা একাধিক। অর্থাৎ সেক্ষেত্রে কয়েক প্রকার মৌলকণা থাকতে পারে যা দ্বারা মহাবিশ্ব গঠিত। পরমাণু বিজ্ঞানীরা কেন্দ্ৰীনে বিপরীত কণিকারও সন্ধান পেয়েছেন। বিপরীত কণিকা সম্পর্কে প্রথম ভবিষ্যদ্বাণী করেন ইংরেজ পদার্থবিজ্ঞানী পল ডিরাক ১৯৩০ সালে। তিনি বলেন, প্রত্যেক মৌলিক কণার সাথে একটি বিপরীত কণার অস্তিত্ব রয়েছে। এই বিপরীত কণার ভর কণার ভরের সমান।

 কিন্তু অন্যান্য বৈশিষ্ট্য বিপরীত। যেমন কণার আধান ধনাত্মক হলে বিপরীত কণার আধান হবে ঋণাত্মক ইত্যাদি কণার সঙ্গে বিপরীত কণার মিলনে উভয়ই ধ্বংস হয়ে রূপান্তরিত হয় শক্তিতে (বিকিরণে)। ইলেকট্রনের বিপরীত কণা হল 'পজিট্রন'। পজিট্রনের ভর ইলেকট্রনের সমান কিন্তু আধান ধনাত্মক। ইলেকট্রন পজিট্রন মিলিত হলে এক মিলিয়ন ইলেকট্রন ভােল্ট শক্তি পাওয়া যায়। এক ভােল্টের একটি বৈদ্যুতিক ক্ষেত্র থেকে ইলেকট্রন যে শক্তি সংগ্রহ করে তাকে বলা হয় এক ইলেকট্রন ভােল্ট শক্তি। পজিট্রন আবিষ্কৃত হয় ১৯৪৬ সালে। পদার্থবিদ এন্ডারসন পজিট্রন আবিষ্কার করে ডিরাকের তত্ত্বকে সুপ্রতিষ্ঠিত করেছেন। এরপর ১৯৫৫-৫৬ সালে আবার বিপরীত প্রােটন এবং বিপরীত নিউটন আবিষ্কৃত হয়। তারপর ধীরে ধীরে এটাই প্রমাণিত হয় যে প্রত্যেক কণারই একটি বিপরীত কণা আছে। কণার সমন্বয়ে যেমন পরমাণুর সৃষ্টি বিপরীত কণার সমন্বয়ে তেমনি বিপরীত পরমাণুর সৃষ্টি।

একটি প্রােটনকে কেন্দ্র করে যখন একটি ইলেকট্রন আবর্তিত হয় তখন আমরা একটি হাইড্রোজেন পরমাণু পাই। যদি একটি বিপরীত প্রােটনকে কেন্দ্র করে একটি পজিট্রন আবর্তিত হয় তাহলে আমরা পাব একটি বিপরীত ।
উত্তর প্রদান করেছেন (365 পয়েন্ট)

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

0 টি উত্তর
03 অক্টোবর 2021 "বিজ্ঞান" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Mahfuz Ahmed (711 পয়েন্ট)
1 উত্তর
13 জুন 2021 "সাধারণ জিজ্ঞেসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Admin (4,617 পয়েন্ট)
0 টি উত্তর
20 অক্টোবর 2021 "সাধারণ জ্ঞান" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন মোঃ সাব্বির (54 পয়েন্ট)
1 উত্তর
14 অক্টোবর 2021 "বাংলা সাহিত্য" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Sujit Ray (10,251 পয়েন্ট)
1 উত্তর
13 অক্টোবর 2021 "বাংলা সাহিত্য" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Sujit Ray (10,251 পয়েন্ট)

17,573 টি প্রশ্ন

17,275 টি উত্তর

24 টি মন্তব্য

54,717 জন সদস্য

Answer Fair এ সুস্বাগতম, যেখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং গোষ্ঠীর অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন।
11 Online Users
0 Member 11 Guest
Today Visits : 3349
Yesterday Visits : 38602
Total Visits : 13133844
...