লােমহর্ষক গ্রানাডা ট্র্যাজেডি সম্পর্কে জান্তে চাই?

লােমহর্ষক গ্রানাডা ট্র্যাজেডি সম্পর্কে জান্তে চাই?

54 বার প্রদর্শিত
"আন্তর্জাতিক বিষয়" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন (4,617 পয়েন্ট)
Like

1 উত্তর

যারা আল্লাহদ্রোহী বা তাগুত শক্তি তারা চেয়েছিল এক ফুকারে আল্লাহর দ্বীনকে নিভিয়ে দিতে। কিন্তু একথা সত্য কুফুর শক্তি যতই অত্যাচার নির্যাতন, নিষ্পেষণ করক মুসলমানদের ওপর চালাক না কেন কখনাে যেন সত্যের বাণীকে তারা স্তব্ধ করতে পারবে, না, উমাইয়া সালতানাতের বীর সেনাপতি তারেক বিন যিয়াদের স্পেনের নেতৃত্বে মাটিতে ইসলামের পতাকা উড়তে শুরু করে রে-অষ্টম শতাব্দীর শেষের দিকে। ১৪৯২ সালের আগ পর্যন্ত প্রায় আটশত বছর ধরে স্পেনে মুসলমানদের স্বর্ণযুগ ছিল।

জ্ঞানবিজ্ঞান, শিল্প-সাহিত্য, চিকিৎসা, রাজনীতি, স্থাপত্য, শিল্প ও অর্থনৈতিক সমৃদ্ধিতে সে সময় কালে স্পেনই ছিল এক মাত্র স্পেনের উদাহরণ । মুসলমানদের এমন উন্নতি খ্রিষ্টানরা মােটেও
পছন্দ করলাে না। মুসলমানদের অভ্যন্তরে বিভেদ সৃষ্টি করে সাজানাে বাগানকে তছনছ করার জন্য খ্রিষ্টান রাজা ফার্দিন্যান্ড এক ভয়ঙ্কর ফন্দি এঁকেছিল। আরাে একটি কারণ ছিল ৮০০ বছর রাজত্বের শেষের দিকে মুসলমানদের মধ্যে দ্বন্দ্ব কলহ ও অনৈক্য এবং কুরাআন সুন্নাহ হতে পিছপা হওয়ার কারণে মুসলমানরা আর স্পেনে রাজত্ব করতে পারেনি এই সুযােগের সন্ধানী কোকিল রাজধানী গ্রানাডার রাজা ফার্দিন্যান্ড সুবর্ণ সুযােগ পেয়ে মুসলমানদের ধ্বংস করার পায়তারা মেতে উঠল। সে মনে করল এই সুযােগে মুসলমানদের ধ্বংস করা খুব সহজ। আর যদি ধ্বংস করতে না পারি তাহলে মুসলমানরা গােটা স্পেন রাজত্ব করবে এবং আজানের ধ্বনি শুনা যাবে এটা সহ্য করা যাবে না।

রাজাফার্দিন্যান্ড পার্শ্ববর্তী রাষ্ট্রের রাজা-রানী ইসাবেলাকে বিয়ে করে দুজনে মিলে মুসলিম নিধনের চেষ্টা করে। এমনকি সকল ষড়যন্ত্র ও ফন্দি যখন পরিপূর্ণ তখন কিছু ঘসেটি বেগমের মতাে স্বার্থান্বেষী মুসলমানরা তাদেরকে আশ্রয় দিল। হঠাৎ তারা নিরীহমুসলমানদের ওপর অতর্কিত আক্রমণ পরিচালনা করল। রাজা ফার্দিন্যান্ড ও রানী ইসাবেলার নেতৃত্বে হাজার হাজার মুসলমান নারী পুরুষকে হত্যা করল, তখন মুসলমানদের মাথায় টনক নড়ে উঠল এবং রুখে দাঁড়াল, চতুর ভণ্ড ও প্রতারক রাজা ফার্দিন্যান্ড মনে করল আমরা মুসলমানদের সাথে সম্মুখ যুদ্ধ করলে পারব না। কৌশলে মুসলমানদেরকে পরাস্ত করতে হবে। রাজা ফার্দিন্যান্ডমুসলমানদের ফসলের ক্ষেত, পর খাদ্য গুদামসহ প্রয়ােজনীয় খাদ্য রসদ আগুন দিয়ে পুড়িয়ে ফেলার কারণে মুসলমানদের মধ্যে হঠাৎ নেমে এলাে দুর্ভিক্ষের রেখা। মুসলমানদের সৈন্য বাহিনীরা মুসলমানদের বন্দী করল। ফার্দিন্যান্ড সৈন্য বাহিনীকে ঘােষণা দিল অস্ত্রসহ মসজিদের পার্শ্ব আহ্বান করার জন্য। তাদের সকল প্রস্তুতি যখন বা সম্পন্ন তখন চালাক রাজা ফার্দিন্যান্ড ঘােষণা দিয়ে বলল যে সমস্ত মুসলিম শহরের বিভিন্ন মসজিদে অবস্থান করবে তারা নিরাপদ এবং যারা সমুদ্রে খ্রিষ্টান জাহাজে অবস্থান করবে তাদেরকে পার্শ্ববর্তী মুসলিম রাষ্ট্রে পাঠিয়ে দেব। মুসলমানরা তাদের বক্তব্য সহজ সরল মনে বিশ্বাস করে অবস্থান করল কেউ বা মসজিদে, কেউ বা সমুদ্রে খ্রিষ্টান জাহাজে যারা মসজিদে প্রবেশ করল তাদেরকে পেট্রোল ঢেলে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে মারল এবং যারা জাহাজে অবস্থান করল তাদেরকে সমুদ্রের মাঝখানে ডুবিয়ে মারল।

সে এক হৃদয় বিদারক চিত্র, সাত লক্ষ নারী-পুরুষকে হত্যা করল। সেদিন গ্রানাডার রাজধানীতে আকাশ বাতাস ভারী হয়ে উঠল অসহায় নারী পুরুষ ও শান্তিপ্রিয় মুসলমানদের হত্যাতে হৃদয়ের কান দিয়ে শুনুন অসহায় নারী-শিশু ও দুর্বলবনি আদমের বুকফাটা আর্তচিতকারে কিভাবে পৃথিবীর আকাশ বাতাস ভারী করে তুলছে, পিতা-মাতা হারা রক্তাক্ত অনাথ শিশুটির অসহায় চাহনি কি বিবেককে এতটুকু আহত করে না। সেদিন ছিল ঐতিহাসিক ১৪৯২ এ সালের ১লা এপ্রিল। প্রতারক রাজা ফার্দিন্যান্ড বলেছিল হায়রে মুসলমানরা কত বােকা, এমন সময় রানী ইসাবেলা বলল, ১লা April fool হে এপ্রিলের বােকা। ১৯৯৩ সালে ১লা এপ্রিল তাদের পাঁচশত বছর পৃর্তিতে বিশ্বের খ্রিষ্টানদের নিয়ে একটি হােল্ড মেরি ফান্ড বৈঠক করে। সেখানে তারা সিদ্ধান্ত নেয়, বিশ্বের কোথাও মুসলমানদের মাথা উঁচু করে উঠতে দেবে না ঠিক তাই তারা বাস্তবায়ন করছে।
উত্তর প্রদান করেছেন (4,617 পয়েন্ট)

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
08 জুলাই 2021 "স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন অজ্ঞাতকুলশীল
2 টি উত্তর
21 জুন 2021 "তথ্য ও প্রযুক্তি" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন অজ্ঞাতকুলশীল
1 উত্তর
1 উত্তর
1 উত্তর
20 মে 2021 "মানুষের জীবনী" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Admin (4,617 পয়েন্ট)

17,573 টি প্রশ্ন

17,275 টি উত্তর

24 টি মন্তব্য

54,717 জন সদস্য

Answer Fair এ সুস্বাগতম, যেখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং গোষ্ঠীর অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন।
13 Online Users
0 Member 13 Guest
Today Visits : 10696
Yesterday Visits : 25779
Total Visits : 5850083
...