আপনি কি ইংরেজিতে দুর্বল তাহলে নিজে নিজেই ইংরেজিতে পারদর্শী হবার ১০টি পদ্ধতি জেনে নিন

আপনি কি ইংরেজিতে দুর্বল তাহলে নিজে নিজেই ইংরেজিতে পারদর্শী হবার ১০টি পদ্ধতি জেনে নিন

27 বার প্রদর্শিত
"English" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন
Like

1 উত্তর

১। চিন্তাটা ইংরেজিতে করতে হবে:

আমরা ইংরেজিতে যখন কথা বলি, তখন আগে কী বলব তা বাংলায় ভেবে নেই। তারপর সেটা মনে মনেই ইংরেজিতে অনুবাদ করি এবং তারপর ইংরেজিতে বলি। এর ফলে বারবার বাংলা এবং ইংরেজিতে আমাদের আসা-যাওয়া চলতে থাকে। যে কারণে, কথায় ফ্লুয়েন্সি থাকে না।

তাই, আমাদের চিন্তাটাও ইংরেজিতেই করতে হবে। শুধুমাত্র কথা বলার সময় না। যেকোন সময়ই। যখনই আমরা নিজের মনে কিছু চিন্তা করবো, চেষ্টা করতে হবে সেই চিন্তাও যাতে ইংরেজিতে হয়।

২। একা একা কথা বলা:

যদি ইংরেজিতে চিন্তা করার অভ্যাসটি রপ্ত করে ফেলতে পারো, তাহলে আশে পাশে যখন কেউ নেই; সেই চিন্তাগুলোই নিজেকে নিজে বলে ফেলো। নিজের কানে যখন নিজের কথা শুনতে পাবে, নিজের ভুলগুলোও নিজেই ধরতে পারবে। এবং প্রতিবার প্র্যাকটিসের সময় বুঝতে পারবে যে, আগের চেয়ে ফ্লুয়েন্সি কতটা বাড়লো

৩। গ্রামার নিয়ে বেশি চিন্তা না করা:

ইংরেজিতে কথা বলা নিয়ে সবচেয়ে বেশি সমস্যা হয় গ্রামার নিয়ে। দেখা যায়, গ্রামার নিয়ে এমনিতে কোন সমস্যা নেই। নির্ভুল গ্রামারে লিখে যেতে পারছি। কিন্তু বলতে গেলেই গ্রামারে টুকটাক ভুল হয়েই যাচ্ছে। এবং তখনই আমরা থেমে যাচ্ছি।

এ কারণেই, প্র্যাকটিসের সময় গ্রামার নিয়ে বেশি মাথা ঘামানো যাবে না। ভুল হচ্ছে? হোক! কথা বলা থামানো যাবে না। গ্রামারের ভুলগুলো যতদিন যাবে কমে আসবে। কিন্তু, গ্রামারের কথা ভেবে যদি বলা থামিয়ে দেই, তবে ফ্লুয়েন্সি কখনোই আসবে না।

৪। প্রচুর ইংরেজি শোনা:

আমি যত না ইংরেজি বই পড়ে শিখেছি, তার চেয়ে অনেক অনেক বেশি শিখেছি ইংরেজি মুভি আর সিরিজ দেখে। টিভি সিরিজ এবং মুভি শুধু আমার ইংরেজি শব্দভাণ্ডারই বাড়ায় নি, বরং ইংরেজিতে কথা বলাও সহজ করেছে। এবং এই সিরিজ বা মুভি দেখতে গিয়েই আমি বুঝলাম ইংরেজির কিছু আলাদা শব্দ থাকে। সেগুলোর বাংলা অর্থ করলে দেখা যাবে কিছুই বুঝা যাবে না। সেগুলো যত না শব্দ বা বাক্য, তার চেয়ে বেশি এক্সপ্রেশন। এবং ইংরেজিতে কথা বলার সময় এই এক্সপ্রেশনগুলোর ব্যবহার আমাদের কথাকে আরো শ্রুতিমধুর করে তোলে। তাই, প্রচুর ইংরেজি সিরিজ আর মুভি দেখতে হবে।

৫। ইংরেজি গান গাওয়া:

এই কাজটা আমি খুব করতাম। আমি প্রচুর গান শুনতাম এবং সেই গানগুলো গাওয়ার চেষ্টা করতাম। শুনতে তা যত বেসুরোই হোক না কেন!

এর সুবিধাটা হচ্ছে, সুরে সুরে গান গেয়ে যাওয়ার মাধ্যমে ইংরেজি বলার প্র্যাকটিসটাও হচ্ছে। আবার এই সুর তালের কারণেই আমাদের খুব একটা ভেবেও গাইতে হচ্ছে না। যার ফলে না থেমে ইংরেজি উচ্চারণটা সহজ হচ্ছে ।

৬। ইংরেজিতে গল্প বলা:

তোমার সবচেয়ে প্রিয় গল্পটি কাউকে ইংরেজিতে শোনাও। এটা নিজেকে পরীক্ষা করার খুব ভাল একটা উপায়। যে গল্পটা আমরা খুব ভাল জানি, তা বলতে গেলে আমাদের খুব একটা ভাবতে হয় না। অনর্গল বলে যেতে পারি। সেই গল্পটাই ইংরেজিতে আমরা ঠিক কতটা ভাল বলতে পারছি, সেটা বুঝলেই নিজের অবস্থা সম্পর্কে খুব ভাল একটা ধারণা হয়ে যায়।

৭। যেকোন শব্দের অন্যান্য রূপ সম্পর্কে জানা:

যেকোন শব্দের বেশকিছু রূপ থাকে। এবং একই শব্দের অনেক রকম ব্যবহার হতে পারে। খুব সহজ কোন উদাহরণ যদি দেই, ইংরেজি “get” শব্দের মানে পাওয়াও হতে পারে। আবার বুঝতে পারা অর্থেও এটা ব্যবহার করা হয়। এরকম বেশ কিছু শব্দ আছে, যার অনেক রকম মানে দাঁড়ায়। শুধু তাই না, একই শব্দ বাক্যভেদে ভিন্ন অর্থ বহন করে ।
উত্তর প্রদান করেছেন

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
20 অগাস্ট 2021 "স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন অজ্ঞাতকুলশীল
1 উত্তর
20 অগাস্ট 2021 "স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন অজ্ঞাতকুলশীল
1 উত্তর
20 অগাস্ট 2021 "তথ্য ও প্রযুক্তি" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন অজ্ঞাতকুলশীল
1 উত্তর
20 অগাস্ট 2021 "বিজ্ঞান" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন অজ্ঞাতকুলশীল
1 উত্তর

17,573 টি প্রশ্ন

17,275 টি উত্তর

24 টি মন্তব্য

54,717 জন সদস্য

18 Online Users
0 Member 18 Guest
Today Visits : 30274
Yesterday Visits : 21185
Total Visits : 15976459
...