রচনা লিখার কৌশল সম্পর্কে কিছু নিয়ম লিখে দিন?

রচনা লিখার কৌশল সম্পর্কে কিছু নিয়ম লিখে দিন?

69 বার প্রদর্শিত
"বাংলা রচনা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন (4,617 পয়েন্ট)
Like

1 উত্তর

ভূমিকা : রচনা হচ্ছে ভাব ও ভাষার বন্ধন। প্রবন্ধ বা রচনায় ভাব ও ভাষা দুটিই সমান প্রয়ােজনীয়। ভাবের দ্বারা ছাত্রীদের চিনতার মৌলিকত্বের প্রমাণ হয় এবং ভাষার দ্বারা তার ভাষাজ্ঞানের পরিচয় পাওয়া যায়।

সুতরাং ছাত্র-ছাত্রীদের ভাষাজ্ঞানওমৌলিক চিন্তাধারা বিকাশের পরীক্ষাই যে রচনা লিখনের একমাত্র উদ্দেশ্য, ছাত্র-ছাত্রীদের এ কথা ভুললে চলবে না। রচনা লিখতে গিয়ে ছাত্র-ছাত্রীগণ সর্বপ্রথম যে সমস্যার সম্মুখীন হয়, তা হচ্ছে- আরম্ভ করার সূত্র খুঁজে না পাওয়া। এরূপ স্থলে সর্বোৎকৃষ্ট পন্থা হচ্ছে রচনার বিষয়টি কি? কেন কোথায়? কে ইত্যাদি প্রশ্ন করা। তা হলেই একটা উত্তর বের হয়ে আসবে। এভাবে অনবরত প্রশ্ন করলেই রচনার বিষয়বস্তু ধরা দিবে। উদাহরণস্বরূপ ধরি, ঢাকা। এটি কোথায়, কেন ইত্যাদি প্রশ্ন করে জবাব পাব না। যদি প্রশ্ন করি, ঢাকা কি? উত্তরে পাব শহর। কেমন শহর? রাজধানী শহর, কোথাকার রাজধানী? ইত্যাদি। রচনার সূত্র পাওয়ার এটাই সর্বোৎকৃষ্ট পন্থা।


রচনা লিখতে গিয়ে নিম্নলিখিত নিয়মগুলাে মেনে চলা উচিত:

১. এক একটি সূত্র বিস্তৃত করে এক একটি অনুচ্ছেদ রচনা করবে। মনে রাখবে, যেন একই কথার পুনরুক্তি না ঘটে। সহজ ভাষায় এক একটা সূত্র এবং এক একটি অনুচ্ছেদ সুন্দর করে লিখতে হবে।


২. রচনার ভাষা সরল ও বক্তব্য সুস্প্ট হওয়া উচিত। কঠিন শব্দবিন্যাস, অহেতুক লেখা ও অলঙ্কারের বাড়াবাড়ি বর্জন করা উচিত।


৩. রচনার সর্বত্র এক ভাষা ও এক রীতির বানান হওয়াই বিধি সম্মত। পুরাতন বানান এবং নতুন বানানের মিশ্রণ যাতে না হয় সেদিকে লক্ষ রাখতে হবে। সাধু কিংবা চলিত যে কোন ভাষাতেই প্রকল্ধ লেখা যেতে পারে। পরীক্ষার উত্তরপত্রেও একটা সম্পূর্ণ উত্তর যে কোন ভাষায় লেখা যেতে পারে। কিন্তু একই উত্তরে সাধু এবং চলতি রীতি মিশ্রণ দূষণীয়।


৪. এরপর উত্ত রচনাটি লেখার জন্য যে সব তথ্য সংগ্রহ হয়েছে, সেগুলাের প্রধান প্রধান অংশ সাজিয়ে
নিতে হবে।


৫. রচনার বক্তব্য যথাসম্ভব সংক্ষপ্ত হবে। অনাবশ্যক ও অবাস্তবে কথা বলে রচনার আকার বৃদ্ধি ও সময় নষ্ট না করাই ভাল। যত কম কথা বলে মনের ভাব বেশি প্রকাশ করা যায়, ততই ভাল। আসলে এখানেই কৃতিত্ব। এরূপ লেখা শিক্ষার্থীরা সহজেই আয়ত্ত করতে পারে।


৬. প্রয়ােজনবােধে প্রাসক্গিকভাবে বড় বড় লেখকের বক্তব্যের উদ্ধৃতিও দেয়া যায়। এতে বক্তব্য আরাে জোরালাে হবে। কিন্তু বেশি উদ্ধৃতি দেয়া ভাল নয়।


৭. সবচেয়ে বড় কথা হলাে, যা-ই লেখা হবে অত্যন্ত দরদ দিয়ে লিখতে হবে। মনে রাখা জরুরী, যে রচনা নিজের অন্তর দিয়ে লেখা হয় নি, তা অন্যের মন জয় করতে পারবে না।

রচনার প্রকারভেদ একসময় রচনাকে বর্ণনামূলক, বিবৃতিমূলক ও চিন্তামূলক এ তিনভাগে ভাগ করা হতাে। কিনতু বর্তমানে আর এরূপ বিভাগ মানা হয় না। কারণ, রচনা মাত্রই চিন্তামূলক এবং বর্ণনা ও বিবৃতি ছাড়া সে চিন্তা প্রকাশের উপায় নেই। রচনা লেখার কৌশল পূর্বেই বলা হয়েছে, যে বিষয়ে রচনা লিখতে হবে সে বিষয়টি পূর্বে থেকে ভাল করে ভেবে চিন্তে নিতে হবে। সম্পূর্ণ ভাবটি আয়ত্তে আসার পর কতিকগুলো প্রশ্ন সাজিয়ে নিতে হবে। এরপর প্রশ্নগুলাে পরস্পর সাজিয়ে যথাযথ উত্তর দিয়ে দিলেই পূর্ণাঙ্গ রচনাটি পাওয়া যাবে। বর্ণনামূলক প্রবন্ধ লেখার রীতি বর্ণনামূলক প্রবন্ধের বর্ণনীয় বিষয়গুলোে বস্তুগত অথবা বস্তুগত অথবা স্থঅন বাচক হতে পারে। বস্তু বলতে জগতের লক্ষ লক্ষ কসতুক বুঝায়। আর এদের যে-কোন একটি সম্বন্ধে প্রবন্ধ লেখা যেতে পারে। তবাং এ শ্রেণীর প্রবন্ধ কি করে লিখতে হয় তা জানা উচিত। প্রথমেই বর্ণনানীয় বস্তুটির পরিচয় দিতে হয়।


মনে কর যে, পাঠক এর সম্বন্ধে কিছুই জানে না। পরিচয়ের পর তা কোন শ্রেণীর বস্তু তা বলতে হয় এবং সেই সাথে সম্ভব হলে সমগ্র প্রকৃতির অন্যান্য বস্তর সাথে তুলনা করলে মন্দ হয় না। তারপর ঐ বস্তুটির সৃষ্টি ও পরবর্তী ইতিহাস ধারাবাহিকভাবে লিপিবদ্ধ করতে হয় এবং ভবিষ্যতে এর কোন পরিবর্তনের সম্ভাবনা থাকলে তাও উল্লেখ করতে হয়। তা দ্বারা মানষের কী কী উপকার বা অপকার হচ্ছে তাও বলা উচিত। অবশ্য এর প্রকারভেদ থাকলে পূর্বেই তা উল্লেখ করতে হবে সর্বশেষে উপসংহারে ঐ বস্তুটি সম্বন্ধে নিজের বিশিষ্ট মতামত জ্ঞাপন করে প্রবনেধের পরিসমাপ্তি আনতে হবে। 

ঘটনামূলক প্রবন্ধ লেখার রীতি ঘটনামূলক প্রবন্ধের প্রথম ও প্রধান উদ্দেশ্য রস সৃষটি করে একটি বিশিষ্ট ঘটনাকে ফুটিয়ে তুলে পাঠকের হৃদয়ে নানা ভাবের উদ্রেক করা। সুতরাং অনুভূতির ও ভাবের দিকটিই বিশেষ করে এ প্রবন্ধে স্থান লাভ করবে। এবূপ প্রবন্ধে ঘটনাদির ইতিহাস উল্লেখ করতে হবে এবং কার্যকারণের ধারা অনুসারে যথানিয়মে ঘটনাটি যেভাবে ঘটেছিল তা উল্লেখ করতে হবে। জীবনী বিষয়ক প্রবন্ধ লেখার রীতি জীবনীবিষয়ক প্রকল্ধ লেখার সময় মনে রাখতে হবে যে, ইতিহাসের প্রশ্নের উত্তর দিতে হচ্ছে না। রচনাটিতে সাহিত্যের রস থাকা চাই। এটা ঘটনা ও তারিখের তালিকা মাত্র নয়। যার সম্বন্ধে লিখতে হবে তার জন্মের পূর্বে বা সেই সময়ে দেশের সামাজিক, রাজনৈতিক, শিক্ষা বা ধর্মীয় অবস্থা কিরূপ ছিল তা প্রথমে বলতে হবে, কারণ ঐ অবস্থায় তাঁর ন্যায় ব্যক্তির আবির্ভাব কেন হয়েছিল এবং ঐ আবির্ভাব কতখানি সার্থক হয়েছিল তাই মূলত প্রবন্ধের আলােচ্য বিষয়। তিনি তাঁর জীবন সাধনায় কতবার, কিভাবে অসাধারণ প্রতিভা ও চরিত্র বলে দুর্জয় বাধা-বিঘ্ন- বিপদকে অতিক্রম করেছিলেন তা আলােচনা করতে হবে এবং ঐ আলােচনা দ্বারা সেই মূল্যবান জীবনের নিগূঢ় বাণীটি প্রকাশ করতে হবে।

উপসংহার : পরিশেষে তাঁর চরিত্র, কর্ম ও জীবনের প্রভাব দেশের ও সমগ্র মানব জাতির ওপর কতখানি পড়েছে এবং তা কতদিন স্থায়ী হতে পারে তাও সম্যক আলােচনা করতে হবে। সমালােচনামূলক প্রবন্ধ লেখার রীতি সমালােচনামূলক প্রবন্ধে প্রায়ই লেখক, গ্রন্থ ও চরিত্রের সমালােচনা করা হয়। গ্রন্থ-সমালােচনায় গ্রন্থের পরিচয়, বিষয়, দোষ-গুণ, সমাজ ও মনুষ্য জাতির ওপর তার প্রভাব-এ সব বিষয় আলােচনা করতে হয়। চরিত্র সমালােচনায় চরিত্রের দোষ-গুণ , উথান-পতন, আশা-নিরাশা, সফলতা-বিফলতা প্রভৃতি আলােচনা করতে হয়। কোন লেখক সম্বন্ধে সমালােচনা করতে হলে সেই লেখক যে সাহিত্য তাঁর জীবনে কতখানি প্রতিফলিত হয়েছে, তা ফটিয়ে তুলতে হবে। এ বিভাগে স্বীয় মতামত প্রকাশ করতে হয়। বর্তমান সময়ের অভিমত অনুসারে আলােচ্য গ্রন্থটি বা চরিত্রটি কোন স্থান পেতে পারে, তা নির্দেশ করতে হয়। চিন্তামূলক প্রবন্ধ লেখার রীতি চিনতামূলক প্রকন্ধ লিখতে চিন্তা ও কল্পনার সাহায্য নিতে হয়। চিন্তা ওকল্পনার অর্থ এমন নয় যে, ও অবাস্তব কথার অবতারণা করে প্রকন্ধ লিখতে হবে। প্রত্যেকটি বিষয় সম্বন্ধে যতগুলাে ভাব ও যুক্তি ভেবে বের করা যায় সমস্তই একত্র করতে হবে এবং তাদের যথানিয়মে সাজিয়ে ফেলতে হবে। 

এ বিভাগের প্রবন্ধে অধিকতর যুক্তির অবতারণা করতে হয়ত বক্তব্যগুলোতে বেশ একটু মৌলিকতা দেখাতে পারলে প্রবন্ধ উত্তম হয়।

উত্তর প্রদান করেছেন (4,617 পয়েন্ট)
সম্পাদিত করেছেন

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
22 মে 2021 "কবিতা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Admin (4,617 পয়েন্ট)
1 উত্তর
27 সেপ্টেম্বর 2021 "স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন sk sujon (3,321 পয়েন্ট)
1 উত্তর
13 অক্টোবর 2021 "বাংলা রচনা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Sujit Ray (10,251 পয়েন্ট)
1 উত্তর
13 অক্টোবর 2021 "বাংলা রচনা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Sujit Ray (10,251 পয়েন্ট)

17,573 টি প্রশ্ন

17,275 টি উত্তর

24 টি মন্তব্য

54,717 জন সদস্য

Answer Fair এ সুস্বাগতম, যেখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং গোষ্ঠীর অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন।
24 Online Users
0 Member 24 Guest
Today Visits : 10910
Yesterday Visits : 25779
Total Visits : 5850296
...